সেলেব্রিটি হওয়ার একাধিক জ্বালা। শুধু এদেশে নয়, Hollywood অভিনেত্রীদেরও মাঝে মধ্যে ব্যক্তিগত ছবি লিকের মতো সমস্যায় জেরবার হতে হয়। তেমনই এক ভয়ংকর অভিজ্ঞতার কথা শেয়ার করলেন Jennifer Lawrence।

সম্প্রতি একটি সাক্ষাত্‌কারে জেনিফার লরেন্স শেয়ার করলেন ২০১৪ সালে তাঁর সঙ্গে ঘটে যাওয়া এক ভয়ংকর অভিজ্ঞতার কথা। তাঁর কোনও সম্মতি ছাড়াই একান্ত ব্যক্তিগত কিছু ছবি ইন্টারনেটে লিক হয়ে যায়। আর তার পরেই রীতিমতো ট্রমায় চলে যান Jennifer Lawrence।

নগ্ন শরীরের ছবি লিক হয়ে গিয়েছিল ইন্টারনেটে। সাক্ষাত্‌কারে তিনি বলেন, ‘যে কেউ আমার অনুমতি ছাড়াই যতক্ষণ ইচ্ছে আমার নগ্ন শরীর দেখতে পারেন।

ফ্রান্সের কোনও এক ব্যক্তি আমার অনুমতি ছাড়াই সেই ভিডিয়ো ইন্টারনেটে পাবলিশ করে দিয়েছিলেন। এই ঘটনায় যে মানসিক আঘাত পেয়েছিলাম, তার থেকে কখনও বেরোতে পারব না।’

কীভাবে ব্যক্তিগত সেই সব মুহূর্তের ছবি লিক হয়ে গিয়েছিল? ২০১৪ সালে হ্যাক হয়ে যায় Jennifer Lawrence-এর iCloud। ব্যাক্তিগত ভিডিয়ো, তথ্য এবং ছবি লিক হয়ে যায় ইন্টারনেটে।

সাক্ষাত্‌কারে জেনিফার লরেন্স আরও বলেন, ‘যেহেতু আমি পাবলিক ফিগার এবং অভিনেতী তাই আমাকে এই সব কিছু সহ্য করতে হবে এমনটা হতে পারে না। শরীর যখন আমার, তখন ইচ্ছা-অনিচ্ছাটাও আমারই। আর এই কাজটা আমার ইচ্ছের বিরুদ্ধে হয়েছিল। সেটাই কোনও দিন মেনে নিতে পারব না। বিশ্বাসই হয় না, এমন জঘন্য দুনিয়ায় বাস করি আমরা।’

ওই একই হ্যাকিং গ্রুপের শিকার হয়েছেন Hollywood-এর আরও বেশ কয়েক জন নায়িকা। সেই তালিকায় নাম রয়েছে Ariana Grande, Victoria Justice এবং Kate Upton।



Source link

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here