#মুম্বই: মাদক মামলায় অভিযুক্ত আরিয়ান খান (Aryan Khan) ষড়যন্ত্র করেছিলেন, এমন কোনও প্রমাণ পাওয়া যায়নি। বম্বে হাইকোর্ট (Bombay Top Court docket) জামিনের নির্দেশনামায় এমনই জানিয়েছে। বিস্তারিত জামিনের এই নির্দেশ নামা আদালত এও জানিয়েছে যে, আরিয়ান এর কাছ থেকে কিছুই পাওয়া যায়নি। এই ঘটনায়‌ অভিযুক্ত মুনমুন ধামেচা এবং আরবাজ মার্চেন্টও ষড়যন্ত্র করেছিলেন বলে কোনও প্রমাণ পাওয়া যায়নি। গত ৩ অক্টোবর মাদক মামলায় নারকোটিকস কন্ট্রোল ব্যুরো শাহরুখ খানের (Shah Rukh Khan) ছেলে আরিয়ান খানকে। তারই সঙ্গে গ্রেফতার হয়েছিলেন আরবাজ ও মুনমুন।

বম্বে হাইকোর্ট জানিয়েছে, ঘটনায় অভিযুক্ত এই তিনজনের বিরুদ্ধে কোন সদর্থক প্রমাণ নেই। এমনকি আরিয়ানের (Aryan Khan) হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাটেও অপরাধমূলক কোনও প্রমাণ পাওয়া যায়নি। তারা যে মাদক কাণ্ডের ষড়যন্ত্র করেছিলেন এমন কোনও প্রমাণও মেলেনি। এমন কোনও প্রামাণ্য তথ্য মেলেনি, যা বলছে তিন অভিযুক্তের বেআইনি বা অপরাধমূলক কোন উদ্দেশ্য ছিল না। ১৪ পাতার জামিনের নির্দেশনামায় জানিয়েছে আদালত। তিন অভিযুক্তকেই এনসিবি (NCN) গোয়াগামী প্রমোদতরী থেকে গ্রেফতার করেছিল। ‌টানা ২৬ দিন কারাবাস করে জামিন পেয়েছিলেন আরিয়ান। গত ২৮ অক্টোবরই বম্বে হাইকোর্টে জামিন পেয়েছিলেন আরিয়ান। ১ লক্ষ টাকার বন্ডে আরিয়ান খানের জামিনদার হয়েছিলেন শাহরুখের বন্ধু-আইপিএল দলের পার্টনার এবং অভিনেত্রী জুহি চাওলা।

আরও পড়ুন- তৃতীয়বার বিয়ে করবেন আমির খান? পাত্রীটি কে, জল্পনা তুঙ্গে

জামিন পেলেও প্রতি শুক্রবার এনসিবি অফিসে হাজিরা দিতে হচ্ছে আরিয়ান ও অন্যান্য অভিযুক্তদের। প্রসঙ্গত, নিম্ন আদালতে বার বার আরিয়ানের (Aryan Khan) জামিনের আবেদন খারিজ হওয়ার পরে বম্বে হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিলেন আরিয়ান। সেই আবেদনে শাহরুখ পুত্র বলেছিলেন, তাঁর হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাটের ভুল ব্যাখ্যা করা হচ্ছে। আরিয়ান এও বলেছিলেন যে, তাঁকে এই মাদককাণ্ডে জড়ানোর জন্য হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাটগুলি ভুল ভাবে ব্যাখ্যা করা হচ্ছে। অবশেষে ২৮ অক্টোবর জামিন পান আরিয়ান।

আরও পড়ুন- ভিকির সঙ্গে বিয়ের পরেই নাকি নাম বদলে ফেলছেন ক্যাটরিনা! বলিউডে জোর জল্পনা

উল্লেখ্য, প্রথম থেকে নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরো (এনসিবি) তরফ থেকে এই মামলার দায়িত্বে ছিলেন সমীর ওয়াংখেড়ে (Sameer Wankhede)। কিন্তু তাঁকে সরিয়ে দওয়া হয়েছে এই মামলা থেকে। মুম্বই মাদক কাণ্ডে তিনিই প্রধান তদন্তকারীর ভূমিকা পালন করছিলেন। কিন্তু এই মামলা চলাকালীন ঘুষ চাওয়া সহ ইত্যাদি অভিযোগ ওঠে সমীর ওয়াংখেড়ের বিরুদ্ধে। নতুন করে স্পেশাল ইনভেস্টিগেশন টিম (SIT) গঠন করা হয়েছে। তার মধ্যে রয়েছে আরিয়ানের (Aryan Khan) মামলা‌টিও।



Source link

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here