কলকাতা: মনেক কথা মুখে খুবই স্পষ্ট করে বলতে পারেন টলিউডের (Tollywood) জনপ্রিয় অভিনেত্রী শ্রীলেখা মিত্র (Sreelekha Mitra)। মন খারাপ থাকুক আর ভালো থাকুক, সবকিছুই সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে অনুরাগীদের সঙ্গে শেয়ার করে নিতে পছন্দ করেন অভিনেত্রী। সোশ্যাল মিডিয়ায় খুবই সক্রিয় থাকেন তিনি। প্রায়শই সেখানে তাঁকে ছবি, ভিডিও পোস্ট করতে দেখা যায়। আর তাঁর সারমেয়প্রেমের কথা তো অনুরাগীদের অজানা নয়। সারমেয়দের দেখাশোনা করতে গিয়ে তাঁকে কম ঝামেলায় পড়তেও হয় না। মাত্র কয়েকদিন আগেই নিজের আবাসনে প্রতিবেশীদের সঙ্গে এক সারমেয়কে নিয়েই ঝামেলায় জড়ান অভিনেত্রী শ্রীলেখা মিত্র। গোটা ঘটনা নিজের সোশ্যাল মিডিয়া হ্যান্ডলে লাইভ করে দেখানও। পাশাপাশি পরক্ষণেই অন্য একটি লাইভে সারমেয়কে নিয়ে প্রতিবেশীদের হেনস্থার শিকার হওয়া শ্রীলেখা মিত্রকে কান্নায় ভেঙে পড়তে দেখা যায়।  আজ বিবাহবার্ষিকী তাঁর। বিবাহবার্ষিকীতে মন খারাপ অভিনেত্রীর। তাই স্মৃতির পাতা উল্টিয়ে অনুরাগীদের সঙ্গে ভাগ করে নিলেন অদেখা কিছু ছবি।

পুজোর ঠিক আগেই বাবাকে হারিয়েছেন টলিউড অভিনেত্রী শ্রীলেখা মিত্র। ব্যক্তিগত জীবনে নানা সমস্যায় আগে থেকেই জর্জরিত ছিলেন। তারইমধ্যে বাবার চলে যাওয়া তাঁকে আরও বিধ্বস্থ করে দিয়েছে। আজ শুধুই তাঁর বিবাহবার্ষিকী নয়। তার সঙ্গে আজ তাঁর বাবারও জন্মদিন। জীবনের দুটি গুরুত্বপূর্ণ দিন একইদিনে পড়ায় স্মৃতির পাতা থেকে পোস্ট করলেন অদেখা ছবি। তার সঙ্গে লিখলেন আবেগধন বার্তাও।

আরও পড়ুন – KBC 13: ‘কৌন বনেগা ক্রোড়পতি’ থেকে কত টাকা জিতলেন সেফ-রানি?

এদিন নিজের সোশ্যাল মিডিয়া হ্যান্ডলে অভিনেত্রী শ্রীলেখা মিত্র দুটি ছবি পোস্ট করেছেন। একটি দেখা যাচ্ছে বিয়ের দিন কনের সাজে সেজে উঠেছেন তিনি। অন্য আরেকটি ছবিতে তাঁকে বিয়ের সাজে বাবার সঙ্গে দেখা যাচ্ছে। ছবি দুটি পোস্ট করে শ্রীলেখা মিত্র লিখেছেন, ‘কিছু কিছু দিন জীবনে এমন দাগ কেটে যায়, যা চিরতরে থেকে যায়। একইসঙ্গে তা যন্ত্রণার আবার ভালোলাগাও ছড়িয়ে দেয়। ২০০৩ সালের এমনই এক ২০ নভেম্বর বিয়ে করেছিলাম। আর এই ২০ নভেম্বরই আমার বাবার জন্মদিন। দুটো দিনই আজ আমার জীবনে অতীত। বিয়েও অতীত হয়েছে আর বাবাও ছেড়ে চলে গিয়েছে। আমি শুধু স্মৃতির পাতা ওল্টাচ্ছি।’ শ্রীলেখা মিত্রের এমন আবেগঘন বার্তা দেখে অনুরাগীরাও তাঁকে যেমন ভালোবাসা জানিয়েছেন, তেমনই সমবেদনায় তাঁর পাশেও দাঁড়িয়েছেন।



Source link

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here