কলকাতা: ‘কাহানি’-ছবির প্রথম খসড়ায় বব বিশ্বাসের ভূমিকায় শ্বাশত চট্টোপাধ্যায় (Saswata Chatterjee) নয়, নাম ছিল অভিষেক বচ্চনের (Avishek Bacchan), একটি সাক্ষাৎকারে জানালেন সুজয় ঘোষ (Sujoy Ghosh)। ২০২১ সালে বিদ্যা বালন (Vidya Balan), পরমব্রত চট্টোপাধ্যায়, শ্বাশত চট্টোপাধ্যায় অভিনীত থ্রিলার ‘কাহানি’ দর্শকদের মধ্যে কার্যত আলোড়ন ফেলে দিয়েছিল। আলাদা করে সবার মনে ধরেছিল ‘বব বিশ্বাস’-এর চরিত্র। নিপাট ভালোমানুষ চেহারার এক ভাড়াটে খুনির চরিত্রকে পর্দায় নিখুঁতভাবে ফুটিয়ে তুলেছিলেন বাংলার অভিনেতা, শ্বাশত চট্টোপাধ্যায়।

বব বিশ্বাসের সেই জনপ্রিয়তাকে মাথায় রেখেই এই চরিত্রকে নিয়েই নতুন ছবি তৈরি করছেন সুজয় ঘোষ। আর নতুন ‘বব বিশ্বাস’-এ কেন্দ্রীয় চরিত্রে দেখা যাবে অমিতাভ পুত্র অভিষেক বচ্চনকে। ট্রেলার মুক্তি পেতেই অবশ্য শ্বাশত চট্টোপাধ্যায় ও অভিষেক বচ্চনকে নিয়ে দাঁড়িপাল্লার বিচার শুরু করে দিয়েছেন দর্শকরা। বব বিশ্বাসের চরিত্রে কোন অভিনেতাকে বেশি ভালো মানিয়েছে, তা নিয়ে তরজা চলছেই। এর ফাঁকেই একটি সাক্ষাৎকারে বব বিশ্বাসের চরিত্রায়ন নিয়ে মুখ খুললেন সুজয় ঘোষ। 

আজ একটি সাক্ষাৎকারে সুজয় বলেন, ‘সিনেমাতে যা দেখানো হয়েছে, তার থেকে বেশ কিছুটা আলাদা ছিল কাহানি-র চিত্রনাট্য। গল্পে ছিল এক ব্যক্তির সঙ্গে এয়ারপোর্টে আলাপ হয় এক অন্ত্বঃসত্তা মহিলার যে কলকাতায় তাঁর হারিয়ে যাওয়া স্বামীকে খুঁজতে এসেছে। ওই মহিলার কথা শুনে ওই ব্যক্তির তাঁর ওপর দয়া হয় ও তাঁকে তাঁর স্বামীকে খুঁজে পেতে সাহায্য করে ওই ব্যক্তি। কিন্তু তাঁর বোধগম্য হয় না কেন ওই মহিলাকে কেউ খুন করতে চায়। কারণ ওই ব্যক্তিই ওই মহিলাকে খুন করার নির্দেশ পেয়েছে।’ সুজয় আরও জানান, ‘প্রথম চিত্রনাট্যে ওই মহিলার নাম ছিল বিদ্যা বাগচি আর ওই ব্যক্তির নাম বব বিশ্বাস। বব ভাড়াটে খুনি হলেও সে ওই নির্দোষ মহিলাকে খুন করতে পারেন। বিদ্যা কেন তার স্বামীকে খুঁজে পেতে চায় তা বব জানতে পারে ও তাকে সাহায্য করে। প্রথম এই চিত্রনাট্য অভিষেক বচ্চনকে গিয়েছিলাম আমি। কিন্তু ডেটের গন্ডগোল হওয়ায় ২০২১ সালের ওই ছবিতে অংশ নিতে পারেননি অভিষেক।’

এরপর ছবির চিত্রনাট্য বেশ কিছুটা বদলে ফেলেন সুজয়। বব নয়, কেন্দ্রিয় চরিত্রে কেবল বিদ্যা বাগচিকে রেখেই ছবি বানানোর সিদ্ধান্ত নেন তিনি।

  



Source link

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here